Components Of Data Communication

Components of Data Communication

Author: Khandakar Jahidul Islam

         ডাটা কমিউনিকেশন এর components মূলত ৫ টি: message, sender ,reciever , medium and protocol. (fig-1)

Message: মেসেজ হল যেই তথ্যটি শেয়ার করা হবে।
Sender: যেই যন্ত্র দিয়ে মেসেজ বা তথ্যটি পাঠানো হবে।
Receiver:
যেই যন্ত্র দিয়ে মেসেজ টি গ্রহণ করা হবে।
Medium : যেই পথ দিয়ে মেসেজটি আসা যাওয়া করবে ।
Protocol
: প্রটোকল হল কিছু নিয়মের সমষ্টি যা তথ্য আদান প্রদান কে তত্বাবধান বা নিয়ন্ত্রণ করে। আমরা পাশের কমিউনিকেশন মডেলটির দিকে খেয়াল করলে দেখতে পাবঃ ( fig-2)

এখানে sender এর মাঝে আছে source system. Receiver এর মাঝে আছে destination system. Medium এর জায়গায় আছে
Transmission System. এখানে source system মূলত source এবং transmitter নিয়ে গঠিত। এর মানে হল, source বা উৎস থেকে উৎপন্ন ডাটা transmitter এর মদ্ধ দিয়ে পরিবহনযোগ্য ডাটায় রুপান্তরিত হয়। তারপর Transmission Medium দিয়ে travel করে।
একইভাবে , destination system, Reciever এবং Destination নিয়ে গঠিত । transmission system দিয়ে travel করা ডাটা receiver এ পৌঁছে। receiver তখন সেই ডাটা কে পাঠযোগ্য ডাটায় রুপান্তরিত করে destinatin এ পৌঁছায় । একটি উদাহারণ দেওয়া যাক workstation এবং server এর মাঝে কমিউনিকেশন । I( fig-3)

এখানে ,work station টি হল source বা ডাটার উৎস, modem হল Transmitter যা এনকোডিং করে ডাটা কে Public Telephone Network
এর মদ্ধ দিয়ে পাঠায়। মানে এখানে Public Telephone Network হল Transmission Medium. এর পর আরেকটি modem প্রেরণকৃত ডাটাকে
গ্রহণ করে ডিকোড করে। অর্থাৎ এখানে এই modem টি হল Receiver. তারপর ডাটা ডিকোডেড হয়ে server এ পৌঁছায়, অর্থাৎ server টি হল ডাটার সর্বশেষ Destination .
                  

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *